ভারতীয় মুসলমানরা নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছে:হামিদ আনসারি

84
Hamid Ansari
ভারতের বিদায়ী ভাইস-প্রেসিডেন্ট হামিদ আনসারি
নয়াদিল্লী,বৃহস্পতিবার,১০ আগস্ট ২০১৭:ভারতের বিদায়ী ভাইস-প্রেসিডেন্ট হামিদ আনসারি বলেছেন,ভারতে মুসলমানদের মধ্যে নিরাপত্তাহীনতা ও ভয়ের পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। ভাইস-প্রেসিডেন্ট পদের মেয়াদ শেষ হওয়ার একদিন আগে রাজ্যসভা টিভিকে দেয়া শেষ সাক্ষাৎকারে তিনি এই মন্তব্য করেন। আজ (বৃহস্পতিবার)ভাইস-প্রেসিডেন্ট হিসেবে তার কার্যকালের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। আজই তার মন্তব্য ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।
উল্লেখ্য হামিদ আনসারি দু’দফায় ভাইস-প্রেসিডেন্ট পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। মেয়াদ শেষের আগ মুহূর্তে তার মন্তব্যে হামিদ আনসারি বলেন, ‘এই ধারণা সঠিক যে দেশের মুসলিমদের মধ্যে ভয় ও নিরাপত্তাহীনতার অনুভূতি রয়েছে। দেশের বিভিন্ন অংশ থেকে আমি এ কথা জানতে পেরেছি। বহু শতাব্দি ধরে ভারতীয় সমাজ বহুত্ববাদী কিন্তু সর্বজন স্বীকৃত এই পরিবেশ এখন ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। যেভাবে কথায় কথায় মানুষের জাতীয়তাবোধ নিয়ে প্রশ্ন তোলা হচ্ছে- তা খুব উদ্বেগজনক বিষয় হয়ে দাড়িয়েছে।’
তিনি বলেন, ‘গণপিটুনিতে মৃত্যুর ঘটনা, কুসংস্কারের বিরোধিতাকারীদের হত্যা ও ‘ঘর ওয়াপসি’র (ঘরে ফেরা) ঘটনা ভারতীয় মূল্যবোধ পতনের উদাহরণ। এ সকল ঘটনা থেকে বোঝা যায়,আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সরকারি কর্মকর্তাদের ক্ষমতাও বিভিন্ন স্তরে শেষ হয়ে যাচ্ছে।’দেশে ক্রমবর্ধমান অসহিষ্ণুতা ইস্যু প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং সরকারের অন্য মন্ত্রীদের সামনে তুলে ধরেছেন বলে জানান। গত রবিবার বেঙ্গালুরুতে ন্যাশনাল ল’ স্কুলের ২৫তম বার্ষিক সমাবর্তন অনুষ্ঠানেও ভাইস-প্রেসিডেন্ট হামিদ আনসারি বলেন, ‘সমাজের প্রত্যেক অংশে বৈচিত্রের মধ্যে পারস্পারিক সৌহার্দকে উন্নীত করতে সহিষ্ণুতা এক অপরিহার্য রাষ্ট্রীয় গুণ হওয়া উচিত।’তিনি বলেন, ‘ধর্মনিরপেক্ষতার মৌলিক নীতির পুনরাবৃত্তি ও পুনরুজ্জীবিত করাই বর্তমান সময়ের বড় চ্যালেঞ্জ। এতেই সহনশীলতা ও ধর্মীয় স্বাধীনতা অন্তর্ভুক্ত রয়েছে এবং সহনশীলতা ভারতীয় সমাজের বাস্তবতায় প্রতিফলিত হওয়া উচিত বলে তিনি মন্তব্য করেন।