বাংলাদেশে বন্ধ হচ্ছে পর্ণ সাইট

1464
porn sites
যুক্তরাষ্ট্রে ৫ কোটি মানুষ নিয়মিত পর্ণ-সাইট ভিজিট করে

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বা বিটিআরসি জানিয়েছে সরকারের নির্দেশে দেশে অন্তত সাড়ে পাঁচশো পর্ণ-সাইট বন্ধ করা হবে। বিটিআরসির মিডিয়া ও প্রযুক্তি বিভাগ থেকে বলা হয়েছে, দেশের যুবসমাজের অবক্ষয় রোধে এ উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে।”কোন কোন সাইট ক্ষতিকারক আর কোন কোন সাইট ক্ষতিকারক না তা যাচাই বাছাইয়ের জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।ওই কমিটি বিষয়টা পর্যালোচনা করে দেখছে। পরবর্তীতে ওই কমিটির পর্যালোচনা ও নির্দেশের ভিত্তিতেই দেশের প্রায় সাড়ে পাঁচশো পর্ণ-সাইট বন্ধ করা হবে। ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের একটি তালিকা বিটিআরসির মাধ্যমে বাংলাদেশের বিভিন্ন ইন্টারনেট সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। একইসাথে তালিকাভুক্ত পর্ণ ওয়েবসাইটগুলো বন্ধ করার জন্য কাজও শুরু করেছে বিটিআরসি কর্তৃপক্ষ। সম্প্রতি বাংলাদেশ ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম জানান, বাংলাদেশের পর্ণ ওয়েবসাইট বন্ধ করার উদ্যোগ নিচ্ছে সরকার। ইতোপূর্বে তারানা হালিম বলেছিলেন, বাংলাদেশের পর্ন সাইটগুলোতে প্রবেশকারী ব্যক্তিদের নাম-পরিচয় প্রকাশ করবে না সরকার। জানা যাচ্ছে, তালিকাভুক্ত সাইটগুলোর মধ্যে দেশের অভ্যন্তরে পরিচালিত পর্ণসাইটগুলোই বেশি, তবে কয়েকটি বিদেশি সাইটও রয়েছে এই তালিকায়। বিটিআরসি বলছে,কমিটি ওয়েবসাইটের তালিকা করাসহ পুরো বিষয়টি তদারকি করছে। ভবিষ্যতে প্রয়োজন হলে আরও জোরালো পদক্ষেপ নেয়া হবে।

porn sites
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি ৩৯ মিনিটে একটি পর্ণ ছবি তৈরি হয়

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রতি ৩৯ মিনিটে একটি পর্ণ ছবি তৈরি হয়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মাত্র দুটি রাজ্যে পর্ণ ছবি তৈরি করার অনুমতি দেয়া আছে।এক সমীক্ষা থেকে জানা যায় সারা-বিশ্বে সাড়ে ৭ কোটি পর্ন ওয়েবসাইট আছে। দুনিয়ার সবচেয়ে জনপ্রিয় পর্ণ ওয়েবসাইটের পেজ ভিউজ প্রতি মাসে প্রায় ৫কোটি যা সিএনএন, ইএসপিএনের তিন গুণ। প্রতি সেকেন্ড পর্ণগ্রাফির পিছনে খরচ হয় প্রায় ৩ হাজার ডলার বা বাংলাদেশী মুদ্রায় প্রায় ২ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা। ইউরোপের ২০টি উন্নত দেশ বলেছে তাদের দেশের বড় দশটা সমস্যার মধ্যে প্রথম দিকে আছে শিশু বা চাইল্ড পর্ণোগ্রাফি। কোন উপায়েই তারা এটা রোধ করতে পারছে না। ভারত শিশু পর্ণগ্রাফি রুখতে ইন্টারপোলের দ্বারস্থ হচ্ছে। পর্ন দেখা- যে কোনও মুহূর্তে বিশ্বের অন্তত ৫০ হাজার মানুষ পর্ণোগ্রাফিক সিনেমা দেখছে। প্রতি মুহূর্তে অন্তত ৫০০ জন মানুষ গুগল সার্চে লিখছেন অ্যাডাল্ট বা পর্ণ জাতীয় সিনেমা বা ছবি। পর্ন ইন্ডাস্ট্রি হলিউড, গুগল, এনএফএল, ইয়াহু, ইবে, আমাজনের থেকেও অনেক বেশি বড় ও লাভবান ব্যবসা হচ্ছে শরীরী ব্যবসা অর্থাৎ সেক্স ইন্ডাস্ট্রি (পর্ন সিনেমা, দেহব্যবসা, স্ট্রিপ ক্লাব, নারী পাচার) হল বিশ্বের সবচেয়ে লাভজনক ‘ব্যবসা’।

porn sites
ভারতে ইতোমধ্যে র্পনগ্রাফরি ৮৫৭ টি পর্ণ-সাইট বন্ধ করা হয়েছে

উল্লেখ্য আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত ইন্টারনেট পর্ণগ্রাফির বিষয়ে নাটকীয় অবস্থান নিয়েছে। ভারত সরকার ইতোমধ্যে র্পনগ্রাফরি ৮৫৭ টি পর্ণ-সাইট বন্ধ করে দিয়েছে। ভারতের গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, নিষিদ্ধ নয় তবে সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয়েছে পর্ন সাইটগুলো। অপ্রাপ্তবয়স্কদেরকে এ সাইটগুলো থকেে দূরে রাখার চষ্টোয় এ পদক্ষপে নয়ো হয়েছে। তবে প্রাপ্তবয়স্করার্পন সাইটগুলো দখেতে পারবে। এদিকে রাশিয়া বিনামূল্যে পর্ণ দেখার দুটি বড় সাইট পর্ণহাব ও ইউপর্ণ বন্ধ করে দিয়েছে । আদালতের রায় অনুযায়ী বিনামূল্যে পর্নোগ্রাফি দেখার সবচেয়ে বড় এই দুই পর্ণ-সাইটবন্ধে পয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে দেশটির সরকার।তথ্য প্রযুক্তি ও গণমাধ্যম পর্যবেক্ষণ সংস্থা রস্কমন্যাডজর দেশটিতে পর্ন সাইটসহ বিভিন্ন অপরাধমুলক সাইট বন্ধে জোরদার পদক্ষেপ নিয়েছে।

porn sites
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মাত্র দুটি রাজ্যে পর্ণ ছবি তৈরি করার অনুমতি দেয়া আছে,এভাবে পর্ণ ছবি তৈরি করা হয়।।

ব্রাউজারের হিস্ট্রি মুছে ফেললেই ব্যক্তিগত গোপনীয়তা মুছে যায় না । প্রত্যেক ব্রাউজারেরই একটি অনন্য চিহ্নিতকরণ পরিচয় থাকে। এর থেকে ট্র্যাক করা যায় ব্যবহারকারীর গতিবিধি। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে একটি সমীক্ষা থেকে জানা যায়, সেখানকার ৫ কোটি মানুষ নিয়মিত পর্ণ-সাইট ভিজিট করে। এই তথ্য প্রকাশিত হওয়ার পর সবার টনক নড়ে ওঠে। এই তথ্য পর্যবেক্ষণ থেকেই আরেকটি তথ্য উঠে আসে যে সার্বক্ষণিক সাইবার গতিবিধি নজরদারির মধ্যে রয়েছে। ব্রাউজার হিস্ট্রি পরিষ্কার রাখলেই ব্যক্তিগত গোপনীয়তা বজায় থাকছে না । এছাড়া বিভিন্ন ওয়েব সাইট তাদের ট্র্যাকিং এজেন্ট দিয়ে মেমোরিতে প্রতিনিয়ত ব্যবহারকারীদের বিপুল পরিমাণ তথ্য সংরক্ষণ করে রাখছে। ইন্টারনেট ট্র্যাকিং এতটাই শক্তিশালী হয়ে দাঁড়িয়েছে যে, সাধ্যমতো সবরকম সতর্কতা অবলম্বন করেও ব্যবহারকারীদের কোন লুকানোর জায়গা থাকছে না। কে কোন নিষিদ্ধ সাইট ভিজিট করলেন,কোথায় আপনার অনুসন্ধানের প্রবণতা- সব বের করে ফেলা সম্ভব শুধুমাত্র মাউসের এক ক্লিকেই।সুতরাং সাধু সাবধান।