আজ শনিবার ১৯ মে ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ। মাহে রমজানের ২য় দিন।

84
Al-Baqarah-Verse-183
আজ শনিবার ১৯ মে ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ।আজ মাহে রমজানের ২য় দিন।

আজ শনিবার । ২ রমজান ১৪৩৯ হিজরী । ১৯ মে ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ। ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। আজ পবিত্র রমজান মাসের রহমতের প্রথম ১০ দিনের ২য় দিন।
ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ এর তথ্য অনুযায়ী ঢাকায় আজ ইফতার অনুষ্ঠিত হবে ৬টা ৩৯ মিনিটে এবং আগামীকাল রবিবার ৩রা রমজান, সেহেরির শেষ সময় হবে ভোর রাত ৩টা ৪৫ মিনিট এবং ইফতার অনুষ্ঠিত হবে ৬টা ৪০ মিনেটে।
আরবি ভাষায় রোজাকে সাওম বলা হয়ে থাকে। এর আভিধানিক অর্থ হল বিরত থাকা। মূলত ইসলামের পরিভাষায় সুবহে সাদিক থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত সকল প্রকার পানাহার,কামনা,বাসনাসহ এ সম্পর্কিত সকল বিষয় থেকে বিরত থাকাকে রোজা বলা হয়। মুসলিম উম্মাহর সকল উপযুক্ত ব্যক্তির জন্য রমজানের রোজা ফরজ। শরিয়ত সমর্থিত কারণ ছাড়া রমজানের রোজা ছেড়ে দেওয়া কবিরা গুনাহ। (সুরা:বাকারা,আয়াত:১৮৩-১৮৪)
গত ১৭ই মে ২০১৮ রোজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশের আকাশে ১৪৩৯ হিজরি সনের পবিত্র রমজান মাসের চাঁদ দেখা যাওয়ায় গত ১৮ মে শুক্রবার ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ থেকে পবিত্র রমজান মাস তথা রোজা শুরু হয়েছে। আল্লাহর নৈকট্যলাভের জন্য মুসলমানরা পবিত্র মাহে রমজানের রোজা পালন করে থাকেন। আল্লাহতায়ালার রহমত, মাগফিরাত ও নাজাতের করুণাধারায় আমাদের জীবনকে সিক্ত করতে আবারও ফিরে এলো পবিত্র মাহে রমজান। আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) বলেন, “হে মানুষ! নিঃসন্দেহে তোমাদের কাছে রয়েছে আল্লাহর বরকতপূর্ণ মাস মাহে রমজান। এ মাস রহমত,মাগফিরাত নাজাত তথা ক্ষমার মাস। এ মাস মহান আল্লাহর কাছে শ্রেষ্ঠ মাস। এ মাসের দিনগুলো সবচেয়ে সেরা দিন, এর রাতগুলো শ্রেষ্ঠ রাত এবং এর ঘণ্টাগুলো শ্রেষ্ঠ ঘণ্টা। রমজান মাস এমন এক মাস যে মাসে মানুষ রোজা রাখা ও প্রার্থনা করার মাধ্যমে আল্লাহর মেহমান হিসেবে আমন্ত্রিত হয়। আল্লাহ রাব্বুল-আলামিন আমাদেরকে এ মাসে বিভিন্নভাবে সম্মানিত করেছেন। এ মাসে আমাদের প্রতিটি নিঃশ্বাস মহান আল্লাহর গুণগান করার বা জিকরের সমতুল্য। এ মাসে আমাদের ঘুম প্রার্থনার সমতুল্য, এ মাসে আমাদের সৎকাজ এবং প্রার্থনা ও দোয়াগুলো আল্লাহতালা কবুল করেন। তাই মহান আল্লাহ যেন আমাদেরকে আন্তরিক ও পবিত্র চিত্তে প্রার্থনা করার,রোজা রাখার এবং কোরআন তেলাওয়াত করার তৌফিক দান করেন। আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য ইবাদত ও সৎকর্মের মাধ্যমে এই রমজানের ফজিলত আমরা পূর্ণভাবে অর্জন করতে পারি এবং মহান আল্লাহ যেন এই রমজান মাসে আমাদের উপর রহমত, রবকত ও মাগফেরাত দান করেন এবং আমাদের জাহান্নাম থেকে নাজাত প্রদান করেন (আমিন)।

রোজার নিয়ত ঃ নাওয়াইতু আন আছুমাগাদাম মিন শাহরি রমাজানাল মুবারাকি ফারদ্বল্লাকা ইয়া আল্লাহু ফাতাকাব্বাল মিন্নি ইন্নীকা আন্তাস সামিউল আলীম।
ইফতারির দোয়া ঃ আল্লাহুম্মা লাকা ছুমতু ওয়া তাওয়াক্কালতু আলা রিজক্কিকা আফতারতু বি-রহমাতিকা ইয়া আরহামার রহিমীন।